Ads by tnews247.com
 জেনে নিন জীবনের শেষ কয়েকদিন কেমন কাটিয়েছিলো সাদ্দাম

জেনে নিন জীবনের শেষ কয়েকদিন কেমন কাটিয়েছিলো সাদ্দাম

Sat June 3, 2017     

তিন দশক তেলসমৃদ্ধ মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরাক শাসন করেন প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম হোসেন। প্রবল প্রতাপশালী এই নেতা সেই সময় ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করলেও, চরম নিষ্ঠুরতারও অভিযোগ আনা হয় তাঁর বিরুদ্ধে। আর সেই অভিযোগের কারণ দেখিয়েই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবাধীন সরকার ঈদের আগের রাতে সাদ্দাম হোসেনকে ফাঁসিতে ঝুলায়।

ফাঁসির আগে ইরাকের রাজধানী বাগদাদের একটি কারাগারে বন্দি ছিলেন ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট সাদ্দাম। জীবনের শেষ কয়েকদিন কেমন কাটিয়েছিলেন সাদ্দাম, তা জানান সেই সময় তাঁর নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা এক আমেরিকান কারারক্ষী।

উইল বার্ডেনওয়ারপার নামে ওই কারারক্ষী সাদ্দাম হোসেনের জীবনের শেষ কয়েকদিনের অজানা কিছু ঘটনা নিয়ে লিখেছেন ‘দ্য প্রিজনার ইন হিজ প্যালেস : সাদ্দাম হোসেন, হিজ আমেরিকান গার্ডস অ্যান্ড হোয়াট হিস্টোরি লিভস আনটোল্ড’ নামে একটি বই।

সেই বই ধরেই একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান। আর সেখানেই উঠে এসেছে এক সময়ের মার্কিনমিত্র (উপসাগরীয় যুদ্ধের আগের দিনগুলোতে) সাদ্দাম হোসেনের জীবনের শেষ দিনগুলোর অজানা কাহিনী।

কারারক্ষীর ওই বইতে বলা হয়, ফাঁসির আগের দিনগুলোতে সাদ্দাম হোসেন কেক খেতে খুব পছন্দ করতেন। রেডিওতে শুনতেন মার্কিন গায়িকা ম্যারি জে ব্লিজের গান। এ ছাড়া টেলিভিশনে ‘সিসেম স্ট্রিট’ নামে শিশুদের একটি অনুষ্ঠান বেশ উপভোগ করতেন।

সাদ্দাম হোসেন সকালের নাস্তায় ডিম, কেক ও তাজা ফল খেতেন। তবে ডিমের বিষয়ে নাকি খুবই খুঁতখুঁতে ছিলেন তিনি। ডিম ভাজি সামান্য ছেড়া-ফাটা হলেই ফিরিয়ে দিতেন তিনি।

কারারক্ষী উইল বইতে লেখেন, কারাগারে সাদ্দামের ব্যায়াম করার জন্য একটি নড়বড়ে ‘এক্সাসাইজ বাইক’ ছিল। তিনি সেটিকে খুবই পছন্দ করতেন। আদর করে টাট্টু ঘোড়া বলে ডাকতেন ব্যায়ামের ওই যন্ত্রটিকে। সাদ্দামের কারাগারে এ ধরনের জীবনযাপন দেখে বেশ অবাক হতেন কারাগারের কর্মকর্তারা।

সাদ্দাম হোসেন কারাগারের বন্দিদের হাতে গড়া বাগান খুবই পছন্দ করতেন বলে উল্লেখ করা হয়েছে ওই বইতে। বাগানের ঝোপঝাড়গুলোকেও তিনি সুন্দর ফুলের মতো ভাবতেন।

সাদ্দামের ছেলে উদে হোসেনের কথাও বলেছেন লেখক। উদে তাঁর কাজ-কর্মের জন্য খুবই কুখ্যাত ছিলেন। কারারক্ষীরা যখন নিজেদের সন্তানদের নিয়ে কথা বলতেন তখন সাদ্দাম শোনাতেন উদের কথা। তিনি কারারক্ষীদের বলেন, ‘আমি একদিন উদের ওপর খুব রেগে যাই। তাই আমি তাঁর সব গাড়ি পুড়িয়ে ফেলি।’ গাড়িগুলোর মধ্যে রোলস-রয়েস, ফেরারি ও পোরশের মতো বিলাসবহুল গাড়িও ছিল বলে জানান সাদ্দাম।

সাদ্দামকে এক রকম ভালোবেসেই ফেলেছিলেন তাঁর পাহারায় থাকা ১২ আমেরিকান কারারক্ষী। আর তাই যুক্তরাষ্ট্রের শত্রু হওয়া সত্ত্বেও ইরাকের সাবেক এই প্রেসিডেন্টের ফাঁসির দিন খুবই কষ্ট পেয়েছিলেন তাঁরা।

এ নিয়ে কথা বলতে গিয়ে অ্যাডাম রজারসন নামে একজন লেখককে বলেন, ‘আমার মনে হচ্ছিল আমি পরিবারের একজন সদস্যকে হারিয়েছি। নিজেকে খুনি মনে হচ্ছিল। মনে হচ্ছিল, আমার আপন কাউকে খুন করেছি।’

ফাঁসির পর সাদ্দামের মৃতদেহ বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। তখন লোকজন মৃতদেহে আঘাত করা শুরু করে। এতে হতভম্ভ হয়ে পড়েন ওই ১২ কারারক্ষী। এক রক্ষী এগিয়ে যান তাদের থামাতে। কিন্তু অন্যরা তাঁকে থামিয়ে দেন।

তবে এমনিতেই সাদ্দামকে ভালোবাসেনি তাঁরা। এর পেছনেও আছে অনেক গল্প। একদিন নাকি এক নার্স এসে সাদ্দামকে জানান তাঁর ভাই মারা গেছেন। তখন সাদ্দাম বেশ আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। তিনি জানান, কোনোদিন যদি তাঁর হাতে টাকা আসে, তাহলে তাঁর (নার্সের) ভাইয়ের সন্তানের সব দায়িত্ব নেবেন তিনি।

সাদ্দাম হোসেনকে ২০০৬ সালে মৃত্যুদণ্ড দেয় ইরাকের আদালত। তাঁর বিরুদ্ধে বিরোধীপক্ষের ১৪৮ জনের হত্যাসহ শাসনকালে নিষ্ঠুরতা ও ত্রাস ছড়ানোর অভিযোগ আনা হয়।






Facebook এ আমরা

আরও খবর


ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপের চেষ্টা আবারো আইনি লড়াইয়ে পরাজিত ট্রাম্প ছয়টি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিকদের ওপর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপের চেষ্টা আবারো আইনি লড়াইয়ে পরাজিত হয়েছে

 

আরবদের বয়কটের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ চায় কাতার কাতারি বিমান সংস্থাগুলোকে বয়কটের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে আরব দেশগুলো, তার বিরুদ্ধে জাতিসংঘের ইন্টারন্যাশনাল সিভিল অ্যাভিয়েশনের হস্তক্ষেপ চাইছে কাতার এয়ারওয়েজ।

 

শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল তুরস্ক, গ্রিক দ্বীপ এজিয়ান সাগরে তুরস্কের পশ্চিম উপকূল ও গ্রিসের লেসবস দ্বীপ শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল। যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, সোমবার অনুভূত হওয়া এ ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল রিখটা

 

মোদি-ট্রাম্প প্রথম বৈঠক ২৬ জুন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রথম দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে ২৬ জুন। ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম দুই দেশের নেতার মধ্যে সরাসরি বৈঠক হতে যাচ্ছ

 

মসজিদ নির্মাণে বাধা দেয়ায় ৩২ লাখ ডলার জরিমানা মসজিদ নির্মাণে বাধাপ্রদানের ঘটনায় পাঁচ বছর পর ৩২ লাখ ডলার জরিমানা গুনেছে যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির বার্নাডস উপশহরের স্থানীয় ব্যবস্থাপনা পরিষদ

 

গাদ্দাফির দ্বিতীয় ছেলে সাইফকে মুক্তি দেয়া হয়েছে লিবিয়ার সাবেক নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফির দ্বিতীয় ছেলে সাইফ আল ইসলাম গাদ্দাফিকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। সাইফের মুক্তিতে দেশটিতে আবারো অস্থিরতা দেখা দিতে

 

অন্যান্য

ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপের চেষ্টা আবারো আইনি লড়াইয়ে পরাজিত ট্রাম্প

আরবদের বয়কটের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ চায় কাতার

শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল তুরস্ক, গ্রিক দ্বীপ

মোদি-ট্রাম্প প্রথম বৈঠক ২৬ জুন

মসজিদ নির্মাণে বাধা দেয়ায় ৩২ লাখ ডলার জরিমানা

গাদ্দাফির দ্বিতীয় ছেলে সাইফকে মুক্তি দেয়া হয়েছে

একঘরে হয়ে পড়ার পরেও ফিলিস্তিনি সংগঠনকেই সমর্থন করেছে কাতার

যারা গরু জবাই করেন তাদের ১১ বছর কারাদণ্ড হওয়া উচিত

তেরেসা মে’র দল কনজারভেটিভ পার্টি ‘বিপর্যয়কর’ ফল করেছে

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী দেশ কাতার, বাংলাদেশের অবস্থান ১৪৩

এবার সৌদি আরবে হামলার হুমকি

সন্ত্রাসী হামলায় মার্কিন স্বার্থ রক্ষিত হয়েছেঃ কংগ্রেসম্যান

মিয়ানমারের কারাগারে আটক ৩৩ জন বাংলাদেশিকে মুক্তি দিল দেশটির প্রেসিডেন্ট

মা-বাবার সম্মতিতেই তান্ত্রিকের নাবালিকার মৃতদেহ ধর্ষণ

ঠোঁট না থাকায় সমাজ থেকে বিতাড়িত

কাতারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্নকারী ৫৮ ব্যক্তি ও ১২টি প্রতিষ্ঠানের নাম প্রকাশ

রোহিঙ্গা শিশুর শিক্ষাব্যবস্থা করেছেন তুরস্কের রাষ্ট্রপতি এরদোগান

মার্কিন নেতৃত্বে কৃষ্ণ সাগর অঞ্চলে হতে চলেছে সর্ববৃহৎ সামরিক মহড়া

মিয়ানমারের নিখোঁজ বিমানের ধ্বংসাবশেষ এবং লাশ উদ্ধার

পাকিস্তানে সামরিক ঘাঁটির রিপোর্ট নাকচ করল চীন

সম্পাদক: মেহারাব খান মুন
৩৮ গরিব এ-নেওয়াজ এভিনিউ, উত্তরা, ঢাকা ১২৩০. ইমেইল: info@tnews247.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত tnews247.com ২০১৪
Hosted & Developed by N. I. Biz Soft