Ads by tnews247.com
উচ্চতা না বাড়ার কারণ ও প্রতিকার

উচ্চতা না বাড়ার কারণ ও প্রতিকার

Thu November 27, 2014     

আদর্শভাবে কোনো জনগোষ্ঠীর কারও দৈহিক উচ্চতা যদি তার বয়সী স্বাভাবিক বৃদ্ধি সম্পন্ন কোনো মানুষের দৈহিক উচ্চতার ৭০ শতাংশের চেয়ে কম হয়, তাহলে উক্ত ব্যক্তির দৈহিক গ্রোথ স্বাভাবিক হয়নি বা বামনত্ব রোগে ভুগছে। বামনত্ব প্রাপ্তদের দৈহিক উচ্চতা সাধারণত দুই ফুট আট ইঞ্চি (৮১ সে.মি.) থেকে চার ফুট আট ইঞ্চি (১৪২ সে.মি.) হয়। এদের দৈহিক অঙ্গ প্রত্যঙ্গগুলোর বৃদ্ধি উচ্চতা অনুসারে সমানুপাতিক হতে পারে; আবার সমানুপাতিক নাও হতে পারে। জাতিগত কারণে দৈহিক উচ্চতার বিভিন্নতা থাকতে পারে। আবার একই জাতির মহিলারা পুরুষদের তুলনায় সাধারণত খাটো হয়। মোটাদাগে বামনত্ব বা দৈহিক বৃদ্ধি অর্জনে ব্যর্থতার কারণগুলোকে পাঁচ ভাগে ভাগ করা যেতে পারে- (১) শিশুকাল থেকেই দীর্ঘস্থায়ী রোগে ভোগা, যাতে অপুষ্টির সম্ভাবনা প্রবল থাকে, (২) বংশগত কারণে বামনত্ব, (৩) ধীরগতিতে দৈহিক বৃদ্ধি, (৪) হরমোনজনিত কারণে বামনত্ব। সাধারণত হরমোন ঘাটতির জন্য এ রকম হয়। থাইরয়েড হরমোন নিঃসরণ কমে যাওয়া বামনত্বের একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ। গ্রোথ হরমোন ঘাটতি আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ। পিটুইটারি গ্রন্থির পুরো একটি বা একাধিক হরমোন ঘাটতি বামনত্বের কারণ হতে পারে। সে ক্ষেত্রে রেশমার মতো ঘটনা ঘটবে অর্থাৎ একইসঙ্গে রোগী যৌবন প্রাপ্তি অর্জনে ব্যর্থ হবে; অথবা অনেক পরে যৌবন প্রাপ্ত হবে এবং (৫) জিন বা ক্রোমজমাল ত্রুটি।

যেসব বামনের দেহের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ সমানুপাতিক হারে ছোট তারা সাধারণত জিনগত ত্রুটির কারণে বামনত্ব লাভ করেছে। এদের হাড়ের বৃদ্ধি বয়সানুপাতিক। সারা পৃথিবীর প্রায় ২.৫ শতাংশ মানুষ বামন। বাংলাদেশের প্রায় সাড়ে আট শতাংশ শিশু কাঙ্ক্ষিত দৈহিক বৃদ্ধি অর্জনে ব্যর্থ হয় (বামন)। তবে বাংলাদেশের এ তথ্যটির ব্যাপক গবেষণা প্রয়োজন। একইসঙ্গে আমাদের দেশের শিশু-কিশোরদের দৈহিক বৃদ্ধি ব্যাহত হওয়ার কারণগুলোও নিখুঁতভাবে নিরূপিত হওয়া উচিত। সন্তানের বামনত্ব বা দৈহিক বৃদ্ধি অর্জনে ব্যর্থতার সমস্যা নিয়ে কোনো অভিভাবক চিকিৎসকের কাছে গেলে তার পুঙ্খানুপুঙ্খ ইতিহাস জানার চেষ্টা করবে। এর মধ্যে রোগীটির জন্মের অব্যবহিত পরের শারীরিক গঠনসংক্রান্ত তথ্যগুলো থাকবে। তা ছাড়া বাবা-মাসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের পরিণত বয়সে দৈহিক উচ্চতা, দৈহিক বৃদ্ধির হার ইত্যাদিও প্রয়োজনীয় তথ্য। এরপর রোগীটির শারীরিক মাপজোখ প্রয়োজন হবে। সবশেষে কারণভিত্তিক রোগ নির্ণয় করার জন্য এঙ্-রে, রক্তসহ আরও কিছু পরীক্ষার প্রয়োজন হতে পারে। কিন্তু সবার আগে হরমোন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়া জরুরি।






Facebook এ আমরা

আরও খবর


জেনে নিন কম ঘুমানোর ক্ষতিকর দিক গুলো একাধিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়েছে যে ৬ ঘন্টার কম সময় ঘুমালে শরীরের একাধিক ক্ষতি হয়। আর এমনটা চলতে

 

মারাত্মক ক্ষতিকর চুইংগাম মুখ চালাতে কিংবা কিছুটা অভ্যাসের কারনেই অনেকে চুইংগাম খেয়ে থাকেন। এবার এই অভ্যাসের যদি ইতি টানতে

 

জেনে নিন পপকর্ন খেলে কি হয় খাবারের সঙ্গে শরীরের যে একটা সরাসরি যোগ রয়েছে সেটা আমরা সবাই জানি। রোগে ভোগার পিছনে আমরা কী ধরনের

 

রাজধানীতে বেড়েছে চিকুনগুনিয়া আক্রান্ত হয়েছেন শিক্ষামন্ত্ রাজধানীতে বেড়েছে চিকুনগুনিয়া। ভাইরাসজনিত এই জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ও

 

ক্যানসার তৈরি করে যেসব খাবার মরণব্যাধি ক্যানসার। প্রতিরোধের উত্তম চিকিৎসা। শরীরের অতি দ্রুত অনিয়ন্ত্রিত কোষ বিভাজনের

 

জেনে নেয়া যাক লাউ এর বিশেষ কিছু গুণাগুন >লাউ আমাদের সবার চেনা। কিন্তু লাউ এর অজানা শক্তি সম্পর্কে কয়জন জানেন। লাউয়ের আছে অজানা শক্তি। যা আপনাকে অনেক রোগ থেকে

 

অন্যান্য

জেনে নিন কম ঘুমানোর ক্ষতিকর দিক গুলো

মারাত্মক ক্ষতিকর চুইংগাম

জেনে নিন পপকর্ন খেলে কি হয়

রাজধানীতে বেড়েছে চিকুনগুনিয়া আক্রান্ত হয়েছেন শিক্ষামন্ত্

ক্যানসার তৈরি করে যেসব খাবার

জেনে নেয়া যাক লাউ এর বিশেষ কিছু গুণাগুন

জেনে নিন কলার খোসার উপকারিতা

জেনে নিন যে খাবার খেলে শিশুদেরও ডায়াবেটিস হবে

জেনে নিন শরীরের ঘাম কমাবেন কিভাবে

জেনে নিন দই খাওয়ার উপকারিতা

উচ্চ রক্তচাপ কমাবে শরবত

রমজানে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য কিছু পরামর্শ

ওজন কমাতে সাহায্য করবে কাঁচা আম

ভাত আর রুটি কি একসঙ্গে খাওয়া উচিত?

গর্ভাবস্থায় পুষ্টি

উচ্চতা না বাড়ার কারণ ও প্রতিকার

হাঁটুন ভোরের স্নিগ্ধ বাতাসে

মাত্র ৫ লাখ টাকাতে ক্যান্সারে রোগীদের অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন

মাথার চুলকানি রোধ করার নিয়ম

মেয়েদের মুখে অবাঞ্ছিত লোম

সম্পাদক: মেহারাব খান মুন
৩৮ গরিব এ-নেওয়াজ এভিনিউ, উত্তরা, ঢাকা ১২৩০. ইমেইল: info@tnews247.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত tnews247.com ২০১৪
Hosted & Developed by N. I. Biz Soft