Ads by tnews247.com
 মাত্র  ৫ লাখ টাকাতে ক্যান্সারে রোগীদের অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন

মাত্র ৫ লাখ টাকাতে ক্যান্সারে রোগীদের অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন

Mon November 10, 2014     

অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনে সুস্থ স্বাভাবিক জীবন ফিরে পেয়েছে দেশের সাত জন ব্লাডক্যান্সার আক্রান্ত রোগী। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগে এই সাত রোগীর শরীরের বিনামূল্যে সফল অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন সম্পন্ন হয়েছে। যাকে দেশের স্বাস্থ্যখাতের একটি বিরাট সাফল্য হিসেবে বিবেচনা করছে স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। তারা বলেছেন, জনবল বৃদ্ধি ও অর্থ বরাদ্দ বাড়িয়ে বিভাগটিকে আরো সমৃদ্ধ করলে ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীদের আর বিদেশে দৌঁড়াতে হবে না। রোগীরা বাংলাদেশেই পাবে আধুনিক মানের বিশেষায়িত সেবা।

বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকদের মতে, দেশে ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত ঠিক কতজন রোগী আছে তার কোন পরিসংখ্যান নেই। তবে বিভিন্ন সরকারি হাসপাতাল ও বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকদের চেম্বারে প্রতিদিন প্রচুর রোগী আসছে বলে জানিয়েছেন চিকিত্সকরা জানা গেছে, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. এমএ খানের নেতৃত্বে একটি বিশেষজ্ঞ দল অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনে মাইলফলক স্থাপন করেছে। ২০১৩ সালের ২৩ অক্টোবর ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল-২ ভবনের দশতলায় হেমাটোলজি বিভাগে অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন ইউনিট চালু করা হয়।

অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন শুরু হয় চলতি বছরের ১০ মার্চ থেকে। ২ অক্টোবর পর্যন্ত এখানে সাত জনের অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তারা এখন সম্পূর্ণ সুস্থ বলে জানান চিকিত্সকরা। ওই ইউনিটের চিকিত্সকরা জানান, এই মুহুর্তে তাদের প্রধান প্রতিবন্ধকতা হচ্ছে এলোজেনিক অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনে ডোনার সংগ্রহ করা। আগামী বছর থেকে এই প্রক্রিয়ায় অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন শুরু হবে। এক্ষেত্রে ভাই-বোন ও পরিবারের সদস্যের সঙ্গে কোষের প্রকৃতি মিললেই কেবল অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন সম্ভব। এই চিকিত্সা প্রক্রিয়া শুরুর আগে ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর রক্তের ক্যান্সারের কোষগুলোকে চিকিত্সার মাধ্যমে মেরে ফেলা হয়। পরে রোগীর শরীর থেকে মৃতকোষগুলো সরিয়ে ফেলা হয়। এরপর সংগৃহীত স্ট্যাম সেল অর্থাত্ মাতৃকোষগুলো প্রতিস্থাপন করা হয়। এর মাধ্যমে শরীরে পুনরায় রক্ত কোষ উত্পাদন হয়। চিকিত্সকরা জানান, সাত রোগীর অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন করা হয়েছে অটোলোগাস পদ্ধতিতে। অর্থাত্ রোগীর শরীর থেকে সুস্থ মাতৃকোষ সংগ্রহ করে সংরক্ষণ করা হয়। তারপর ক্যান্সারে আক্রান্ত কোষগুলোকে মেরে তা সরিয়ে ফেলা হয়। এরপর সুস্থ কোষগুলো পুনরায় রোগীর শরীরের প্রবেশ করানো হয়।

জানা গেছে, এ বছরের ১০ মার্চ সর্বপ্রথম রংপুরের ওমর আলীর (৫২) শরীরে সফল অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন করা হয়। এরপর ২৬ এপ্রিল সেনাবাহিনীর সার্জেন্ট আলমগীর হোসেনের (৫০), ৮ জুন দিনাজপুরের ব্যবসায়ী আজগর আলীর (৪৫), ২৬ আগস্ট বিজিবির হাবিলদার রফিকুল ইসলামের (৪৯), ১ অক্টোবর গৃহবধু ফরিদা ইয়াসমিনের (৪৫) ও কলেজ ছাত্র ফাহাদের (২০) ও ২ অক্টোবর স্কুল ছাত্র হিমেলের দেহে অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন করা হয়। তারা এখন সম্পূর্ণ আছেন।

চিকিত্সকরা জানান, অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনের পর থেকে তিন মাস নিবিড় পর্যবেক্ষণ রাখতে হয় রোগীকে। এরপর ১-২ মাস পর পর রোগীকে পরীক্ষা করে যেতে হয়। হেমাটোলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. এমএ খান বলেন, বর্তমানে মহিউদ্দিন (৫২) ও ঠিকাদার সবুজের (৩০) অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনের অপেক্ষায় রয়েছেন। দ্রুত তাদের দেহে অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন করা হবে। এখন তাদের পরীক্ষা-নিরীক্ষাসহ আনুষাঙ্গিক কার্যক্রম চলছে।

তিনি জানান, অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন ইউনিট চালু হওয়ায় দরিদ্র ও অসহায় রোগীরা সবচেয়ে উপকৃত হবেন। বিত্তবানরা বিদেশে না গিয়ে এদেশে স্বল্পমূল্যে অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনের সুযোগ পাবেন। আর্থিক সাশ্রয় ছাড়াও তাদের হয়রাণি অনেকগুণ কমে যাবে বলে তিনি জানান। তিনি বলেন, অত্যাধুনিক এই চিকিত্সা সেবা যাতে আরো বেশি মানুষ পেতে পারে সেজন্য এ বিভাগকে আরও সম্প্রসারণ করতে হবে। বাড়াতে হবে চিকিত্সক, নার্স ও টেকনোলজিস্ট। এছাড়া চিকিত্সক ও নার্সদের প্রতিনিয়ত প্রশিক্ষণ প্রদান ও আর্থিক সহযোগিতা বাড়াতে হবে। একইসঙ্গে ডোনারদের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান তিনি।

ক্যান্সার চিকিত্সা অত্যন্ত ব্যয় বহুল। ব্লাড ক্যান্সারের চিকিত্সা আরো বেশি ব্যয়বহুল। দরিদ্র ও মধ্যবিত্তদের পক্ষে এ চিকিত্সার ব্যয়ভার বহন দুঃসাধ্য। এমনকি দেশের অনেক ধনী ব্যক্তিও এই চিকিত্সা করতে গিয়ে স্বর্বশান্ত হয়েছেন। স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্টরা জানান, বিশ্বের কোন দেশে ব্লাড ক্যান্সারের মত ব্যবহুল অত্যাধুনিক চিকিত্সা বিনামূল্যে করে না। যা শুধু বাংলাদেশই করছে। এর জন্য চিকিত্সকরা শেখ হাসিনা সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। তারা বলেন, পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতসহ বিশ্বের উন্নত দেশে ব্লাড ক্যান্সারের রোগীদের অত্যাধুনিক চিকিত্সা করাতে কমপক্ষে ২০ লাখ টাকা থেকে ১ কোটি টাকা প্রথম ধাপে ব্যয় হয়।

স্বাস্থ্য অধিদফতর ও মন্ত্রণালয়ের দুই কর্মকর্তা জানান, স্বাস্থ্যখাতের কোটি কোটি টাকা বিভিন্ন ভাবে লুটপাট হচ্ছে। এর কিছু অংশও যদি এই ইউনিটের সম্প্রসারণে ব্যয় হতো তাহলে জীবন ফিরে পেতো অনেক রোগী। বর্তমানে দেশে কেমিক্যালের ব্যবহার আশংকাজনক হারে বেড়েছে। পাশাপাশি রেডিয়েশনের মাত্রা বেড়ে চলছে। বিষাক্ত খাদ্য সামগ্রী অবাধে বেচাকেনা ও উত্পাদন হচ্ছে। এসব কারণে ব্লাড ক্যান্সার আশংকাজনক হারে বাড়ছে বলে বিশেষজ্ঞ চিকিত্সকরা জানান। মাল্টিকোল মাইয়েলমা, লিম্ফমা, লিউকেমিয়া ও প্লাস্টিক এনিমিয়া ও থ্যালসেমিয়াসহ বিভিন্ন ধরনের ব্লাড ক্যান্সারে রোগীদের অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন করলে তারা স্বাভাবিক জীবন ফিরে পাবে। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ব্লাড ক্যান্সার রোগীদের অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনে আরেক ধাপ এগুলো বাংলাদেশ। এই চিকিত্সার জন্য রোগীকে ৫ লাখ করে ফি দেয়ার জন্য প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। বলা যায় তারপরেও এটি ফ্রি চিকিত্সা।

একজন রোগীর শরীরে অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনের আগে পরীক্ষা-নিরীক্ষাসহ অন্যান্য খাতেই ব্যয় হয়ে যায় ৫ লাখ টাকার মত। তবে এ চিকিত্সা ব্যবস্থা সম্প্রসারণে আর্থিক বরাদ্দ ও প্রশিক্ষণের কোন বিকল্প নেই বলে তিনি জানান।






Facebook এ আমরা

আরও খবর


জেনে নিন কম ঘুমানোর ক্ষতিকর দিক গুলো একাধিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়েছে যে ৬ ঘন্টার কম সময় ঘুমালে শরীরের একাধিক ক্ষতি হয়। আর এমনটা চলতে

 

মারাত্মক ক্ষতিকর চুইংগাম মুখ চালাতে কিংবা কিছুটা অভ্যাসের কারনেই অনেকে চুইংগাম খেয়ে থাকেন। এবার এই অভ্যাসের যদি ইতি টানতে

 

জেনে নিন পপকর্ন খেলে কি হয় খাবারের সঙ্গে শরীরের যে একটা সরাসরি যোগ রয়েছে সেটা আমরা সবাই জানি। রোগে ভোগার পিছনে আমরা কী ধরনের

 

রাজধানীতে বেড়েছে চিকুনগুনিয়া আক্রান্ত হয়েছেন শিক্ষামন্ত্ রাজধানীতে বেড়েছে চিকুনগুনিয়া। ভাইরাসজনিত এই জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ও

 

ক্যানসার তৈরি করে যেসব খাবার মরণব্যাধি ক্যানসার। প্রতিরোধের উত্তম চিকিৎসা। শরীরের অতি দ্রুত অনিয়ন্ত্রিত কোষ বিভাজনের

 

জেনে নেয়া যাক লাউ এর বিশেষ কিছু গুণাগুন >লাউ আমাদের সবার চেনা। কিন্তু লাউ এর অজানা শক্তি সম্পর্কে কয়জন জানেন। লাউয়ের আছে অজানা শক্তি। যা আপনাকে অনেক রোগ থেকে

 

অন্যান্য

জেনে নিন কম ঘুমানোর ক্ষতিকর দিক গুলো

মারাত্মক ক্ষতিকর চুইংগাম

জেনে নিন পপকর্ন খেলে কি হয়

রাজধানীতে বেড়েছে চিকুনগুনিয়া আক্রান্ত হয়েছেন শিক্ষামন্ত্

ক্যানসার তৈরি করে যেসব খাবার

জেনে নেয়া যাক লাউ এর বিশেষ কিছু গুণাগুন

জেনে নিন কলার খোসার উপকারিতা

জেনে নিন যে খাবার খেলে শিশুদেরও ডায়াবেটিস হবে

জেনে নিন শরীরের ঘাম কমাবেন কিভাবে

জেনে নিন দই খাওয়ার উপকারিতা

উচ্চ রক্তচাপ কমাবে শরবত

রমজানে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য কিছু পরামর্শ

ওজন কমাতে সাহায্য করবে কাঁচা আম

ভাত আর রুটি কি একসঙ্গে খাওয়া উচিত?

গর্ভাবস্থায় পুষ্টি

উচ্চতা না বাড়ার কারণ ও প্রতিকার

হাঁটুন ভোরের স্নিগ্ধ বাতাসে

মাত্র ৫ লাখ টাকাতে ক্যান্সারে রোগীদের অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপন

মাথার চুলকানি রোধ করার নিয়ম

মেয়েদের মুখে অবাঞ্ছিত লোম

সম্পাদক: মেহারাব খান মুন
৩৮ গরিব এ-নেওয়াজ এভিনিউ, উত্তরা, ঢাকা ১২৩০. ইমেইল: info@tnews247.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত tnews247.com ২০১৪
Hosted & Developed by N. I. Biz Soft