Ads by tnews247.com
পিলখানা হত্যা মামলার রায়

পিলখানা হত্যা মামলার রায়

Wed November 6, 2013     
যাবজ্জীবন ও ফাঁসির আসামীদের বিস্ফোরণ ইতিহাস নানা ধরনের আছে। সবছেয়ে বড় সত্যি হচ্ছে ইতহাস থেকে কখনো শিক্ষা নেয়া যায়না। আজকে পিলখানা হত্যা মামলার রায়ের পেছনের ইতিহাস থেকে আমরা শিক্ষা নেবো কি নেবো না সেটাও ভেবে দেখবার বিষয়। একটি দেশের স্বাধীনতা ও সার্বোভৌমত্ত্ব রক্ষায় নিয়োজিত আন্তঃরক্ষা বাহিনীর কাছে জনগণ আসলে কি আশা করে! কি তারা শিখতে চায় বা বিশ্বাস করতে চায়...! আজকের রায় কোন পক্ষে গেছে তার চেয়ে বড় প্রশ্ন হল আমরা সাধারণ মানুষরা কোন পথে যাচ্ছি। আজকে ৫৭ জন সেনা কর্মকর্তা সহ আরো ৭৪ জনকে হত্যার দায়ে যে ১৫২ জন তৎকালীন বিডিয়ার কর্মকর্তার ফাঁসি ও ১৬১ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড হলো, তার পেছনে যে পরিস্থিতিই থাকনা কেন কিংবা যারই ইন্ধন বা ইশারা থাকনা কেন ক্ষতি কিন্তু কেবল আমাদেরই হয়েছে। আমাদের বলতে কেবল সরকারের নয়।ক্ষতি হয়েছে বাংলাদেশের ১৪ কোটি জনগণের। আমরা সরকারকে কর দেই। সেই করের একটা বড় অংশ ব্যয় হয় সামরিক বাহিনী খাতে। সেই ক্ষেত্রে আমরা যদি হিসেব করি যে খুন হওয়া সামরিক অফিসারদের পেছনে তাদের এক একটি যোগ্য পদে আসীন করাতে মোট কত খরচ হয়েছে, তাহলে এক ধরনের ক্ষতির খাতা খুলে যাবে। টাকার এই অংক হয়তোবা পূরণ হয়ে যায়, কিংবা ভুলে যাওয়া যায়। কিন্তু, ওই সমস্ত তৈরি হওয়া অভিজ্ঞ অফিসারের অভাব আদৌ পূরণ হবে কিনা কিংবা হলেও কত বছর বা যুগ লাগবে এটা হিসেবের খাতায় আনা সম্ভব নয়। আর যাদের ফাঁসির এবং জাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ হলো তাদের খেত্রেও কিন্তু যাদের ফাঁসি হবে তাদের অভিজ্ঞতা হারানো সহ যাদের কারাদণ্ড হবে তাদের অভিজ্ঞতাকে অব্যাবহারযোগ্য একটি বস্তুতে রুপান্তরিত করা হল। তাদের পরিবারদের না থাকল কোনো কনো আয়ের উৎস না থাকল দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতির উপর কোনো আস্থা। যে সব ছোট শিশুরা তাদের বাবার, ভাইয়ের বা নিকট আত্মীয়ের এই রায় দেখল টা কি শিখবে... ! আর যে সব পরিবারের সদস্যরা নিহত হয়েছেন তারাই বা কিভাবে নেবে এই পেশাকে। রায়ের খুশি কিংবা ক্ষোভ , আলোচনা কিংবা সমালোচনা বিস্ফোরিত হচ্ছে চারদিকে। অনেকে বলছেন পরবর্তি বিদ্রোহের জন্যে কিভাবে প্রস্তুত হওয়া প্রয়োজোন। আসলে আমাদের ভাবা উচিত বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে। আমাদের ঊচিত হবে মিডিয়াকে ব্যাবহার করে সঠিক ভাবে বিজ্ঞাপণ দেয়া যাতে সাধারণ জনগণ ভীত এবং নিরুৎসাহিত না হয়। কারন ভবিষ্যতে এই পেশায় আসতে পারিবারিক রায়ের বেপারটাই গুরুত্ব পাবে বেশি। সীমানা রক্ষীদেরকে শাস্তি দিয়েই কেবল সমাধান হবে না, সারবেনা রাষ্ট্রের এই বড় ক্ষত। এর জন্য তাদের থেকেও আলাদা ভাবে মতামত নিয়ে তাদের সুবিধা বিবেচনা করে বাহিনিটিকে সংস্কার করতে হবে। বের করতে হবে এবং উপড়ে ফেলতে হবে প্রতিহিংসার বিষ চারাকে। আমাদের সেনাবাহিনি ও বিজিপি বাহিনিকে নতুন করে প্রতিষ্ঠা করতে হবে এই অপার সত্যি...’ দেশকে ভালোবেসে কেবলমাত্র দেশের জন্যেই জীবন দিতে ও নিতে হবে... নিজেকে ভালোবেসে নয়...’’




Facebook এ আমরা

আরও খবর


ইবোলা ভাইরাসঃ আমাদের করনীয়

 

কেন বিয়ে নয়...!

 

এক্টিভিস্ট- ইন্টারনেটে ফেইসবুকে !

 

পিনাক -৬ যে যান করে পরপারে পার...

 

অনলাইনে ব্যবসা

 

আদম আলী মানুষ ছিলো

 

অন্যান্য

ইবোলা ভাইরাসঃ আমাদের করনীয়

কেন বিয়ে নয়...!

এক্টিভিস্ট- ইন্টারনেটে ফেইসবুকে !

পিনাক -৬

অনলাইনে ব্যবসা

আদম আলী মানুষ ছিলো

কি পেয়েছি কি দিলাম...

তাজবিহীন তাজ......

৫ই জানুয়ারী

তুমি অধম তাই বলিয়া আমি উত্তম হইবনা কেন

মিত্র বলতে কি বুঝি...

চোরের চেয়ে বড় চোরের বোঝা...

পাভেল গাজী ,পাভেল দাস...

আমরা বাঁচতে চাই...

পুলিশ তুমি কার...?

কবে আসবে শুভ দিন

পিলখানা হত্যা মামলার রায়

সম্পাদক: মেহারাব খান মুন
৩৮ গরিব এ-নেওয়াজ এভিনিউ, উত্তরা, ঢাকা ১২৩০. ইমেইল: info@tnews247.com
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত tnews247.com ২০১৪
Hosted & Developed by N. I. Biz Soft